ট্যাগগুলি » সেক্স

ইফতারের দাওয়াত দিয়ে নয় বছরের শিশুকে ধর্ষণ এবং অন্যান্য

“ইফতারের দাওয়াত দিয়ে নয় বছরের শিশুকে ধর্ষণ” যে দেশে হয়, সে দেশেই বিধর্মীরা প্রতিদিন ইফতার/সেহরি তুলে দিচ্ছেন অনেক মানুষের মাঝে। ধর্ষণ, ইফতার নিয়ে হাতাহাতি টাইপ কিছু ব্যাপার বাদ দিলে রমজান আসলেই বছরের অন্য এগারো মাসের তুলনায় চমৎকার সৌহার্দপূর্ন একটা সময়!

ঢাকার সবুজবাগে বৌদ্ধ বিহারে গত সাত বছর ধরে বৌদ্ধ ভিক্ষুরা নিজেরা চাঁদা তুলে ইফতার বিতরণ করছেন ছিন্নমূল মানুষের মাঝে। প্রতিদিন প্রায় সাড়ে তিনশ মানুষ এখান থেকে ইফতার খেয়ে রোজা পূর্ণ করেন। এটাই রোজার মহত্ত্ব! বছরের আর এগারো মাস এই দৃশ্য পাওয়া যাবেনা। বাসবো বৌদ্ধ মন্দিরেও গত পাঁচ বছর ধরে প্রতিদিন নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়া ঢাকার আটটি স্পটে ১ টাকায় বিনিময়ে সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের ইফতার/সেহরি দিচ্ছে একটা সংগঠন।

এই সেহরি খেয়ে রোজা রাখছে অনেক মুসলিম। যে শহরে ইফতারের দাওয়াত দিয়ে শিশু ধর্ষণ করা হচ্ছে, সে শহরেই খুঁজলে এমন সৌজন্যতার নজির অনেক পাওয়া যাবে! এইসব মানুষদের জন্যে ভালোবাসা যারা মানুষকে মানুষ ভাবে, মালাউন কিংবা জঙ্গি না!

জাহিদ রাজ রনি

হযরতের কামলীলা, পর্ব-২

সব মুসলমান কথিত নবী মোহাম্মদ সম্পর্কে ভুল ধারণা পোষন করে। যেমনঃ

মুসলমানরা বিশ্বাস করে-
নবী মুহাম্মদ আত্মরক্ষার্থে যুদ্ধ করতেন। তিনি কখনই আগ বাড়িয়ে হামলা করতেন না। কাফেররা আক্রমণ করার পর মুহাম্মদ সেটা প্রতিহত করতেন মাত্র। 350 more words

মোহাম্মদ

হযরতের কামলীলা, পর্ব-১

ইসলামের আলোকে সেক্স এবং নবী মুহাম্মদের সেক্সলাইফ নিয়ে ভিডিও সিরিজ “হযরতের কামলীলা”। আজ প্রকাশিত হলো এর প্রথম পর্ব। পরবর্তী পর্বগুলোর আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন আমার ইউটিউব চ্যানেলে। এই ভিডিও সিরিজে রেফারেন্স সহকারে আলোচনা করে নবী মুহাম্মদের মুখোশ খুলে দেয়া হবে। সঙ্গেই থাকুন।

এই পর্বের রেফারেন্সগুলোও পরবর্তী পর্বগুলোর মত সুন্দর ও নিখুঁতভাবে বিস্তারিত উল্লেখ করা হবে লিঙ্কসহ। যতদিন আপডেট করার সময় না পাচ্ছি, ততদিন ভিডিও থেকে রেফারেন্স নম্বর নিয়ে গুগুল করে নিজেই হাদিসগুলো বের করে নিবেন। কামলীলার সবগুলো পর্ব শেষ হলে এই পর্বের রেফারেন্স আপডেট করবোে।

মোহাম্মদ

নাস্তিকদের অবাধ ও বিকৃত যৌনাচার

সবসময় তো মুমিনদের লুঙ্গি ধরে টানাটানি করি, মহামানবদের নামে কুৎসা রটাই। একজন নাস্তিক হিসেবে আজ নিজেদের সম্পর্কে কিছু বলতে চাই। নাস্তিকদের একদম তলের খবর বলতে পারেন। অধিকাংশ নাস্তিকরাই সেক্সের ব্যাপারে একদম লাগামছাড়া, অযাচারে অভ্যস্ত বিকৃত যৌনতার লোক। ফেসবুকে দীর্ঘদিনের বন্ধুত্ব এবং রিয়েল লাইফে ব্যাক্তিগত পরিচয়ের সুবাদে অনেক নাস্তিক বন্ধুদেরই কিছু গোপন কথা আমি জানি যা আজ জনসম্মুখে প্রকাশ করে দিবো, তাদের আপত্তি সত্ত্বেও। তো চলুন, কিছু রসময় কাহিনী শুনি।

বিবিধ

বাবার সঙ্গে মেয়ের সেক্স, শুট করেছেন মা !

ওয়েব ডেস্ক:  মেয়ের বয়স যখন বছর তেরো, স্বামীর সঙ্গে মেয়ের সেক্স ভিডিও তুলেছিলেন মা নিজেই। এই ঘটনায় ১৯৯৬ সালে শাস্তিও পান দম্পতি।

২০ বছর পর আমেরিকার এক জনপ্রিয় টেলিভিশন শো’তে মুখোমুখি মা ও মেয়ে, মেয়ের চোখে চোখ মেলাতে পাড়লেন না মা। মেয়ে আমান্ডা বলেন, “বাবার সঙ্গে যৌন দৃশ্য নিজে হাতে, দাঁড়িয়ে থেকে শুট করেছেন মা”,

 টেলিভিশন শো’তে মেয়ে আমান্ডা বলছেন, “আমার নির্মলতা আমার থেকে চুরি করা হয়েছে। আমি সেই পরিবারের মেয়ে যার মা বাবা তাঁদের সঙ্গেই যৌন হতে বাধ্য করে।”

”আমি তখন মাত্র ১৩। সেই ঘটনার পর কেটে গিয়েছে ২০ বছর, এখনও এটা ভাবলেই দুঃস্বপ্ন ফিরে আসে, আমার মা বাবা দুজনেই জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন, এখন তাঁরা দুজনেই ঘুরে বেড়াচ্ছে আমার চোখের সামনে দিয়েই।”

 উল্লেখ্য আমেরিকার আদালত জিম ও জাস্টিনের এই জঘন্য অপরাধের শাস্তি হিসেবে ২০ বছরের কারাবাসের নির্দেশ দেয়। ১৯৯৬ সাল থেকে ২০১৬, জেলে থাকার পর এখন তাঁরা দুজনেই মুক্ত।

International

[New post] যৌন মিলনে স্ত্রীকে হার মানাতে চান জেনে নিন কিছু গুরুত্ব পূর্ন কৌশল

​যৌন মিলনে পুরুষের অধিক সময় নেওয়া পুরুষত্বের

মুল যোগ্যতা হিসাবে গন্য হয়। যেকোন পুরুষ

বয়সেরর সাথে সাথে মিলনের নানাবিধ উপায় শিখে

থাকে। এখানে বলে রাখতে চাই – ২৫ বছরের কম

বয়সী পুরুষ সাধারনত বেশি সময় নিয়ে মিলন করতে

পারেনা। তবে তারা খুব অল্প সময় ব্যাভধানে পুনরায়

উত্তেজিত/উত্তপ্ত হতে পারে। ২৫ এর পর বয়স যত

বাড়বে যৌন মিলনে পুরুষ তত বেশি সময় নেয়। কিন্তু

বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে পুনরায় জাগ্রত (ইরিকশান) হওয়ার

ব্যাভধানও বাড়তে থাকে।

তাছাড়া এক নারী কিংবা একপুরুষের সাথে বার বার মিলন

করলে যৌন মিলনে বেশি সময় দেয়া যায় এবং মিলনে

বেশি তৃপ্তি পাওয়া যায়। কারন স্বরুপ: নিয়মিত মিলনে

একে অপরের শরীর এবং ভাললাগা/মন্দলাগা, পছন্দসই

আসনভঙ্গি, সুখ দেয়া নেয়ার পদ্ধতি ইত্যাদি সম্পর্কে

ভালভাবে অবহিত থাকে।

[উল্লেখ্যঃ যারা বলেন “এক তরকারী দিয়ে প্রতিদিন

খেতে ভাল লাগেনা – তাই পর নারী শুধু যৌন মিলন বা

ভোগের লালসা” – তাদেরকে অনুরোধ করছিঃ

দয়াকরে মিথ্যাচার করবেন না। এমন যুক্তি ভিত্তিহীন।

পরকীয়া আমাদের সমাজ ব্যবস্থাকে ধ্বংস করছে।

মাত্র কয়েক মিনিটের কাম যাতনা নিবারনের জন্য

আজীবনের সম্পর্কে অবিশ্বাসের কালো দাগ

লাগাবেন কেন? অবিবাহীত ভাই ও বোনেরা,

আপানাদের কি অতটা বড় বুকের পাটা আছে

– যদি বিয়ের পরে আপনি জানেন যে আপনার

স্ত্রী ‘সতী’ নয় তখন তার সাথে বাকি জীবন

কাটাবেন? তাহলে কেন শুধু শুধু বিবাহ-পুর্ব

যৌন মিলনের জন্য এত ব্যকুলতা? যে ধরনের

নারীকে আপনি গ্রহন করতে পারবেন না – অথচ

সেই আপনি অন্য পুরুষের ভবিষ্যৎ বধুর সতীত্ব

লুটবেন?দুঃখিত যদি কারো ব্যক্তি সত্বায় আঘাত করে

থাকি।]

কোন মেয়ের সাথে প্রথম বার যৌন

মিলম করার সময় কি যোনির ভিতর পুরুষ

অঙ্গ পুরোপুরি প্রবেশ করানো

সম্ভব?

এই পদ্ধতিটি আবিষ্কার করেছেন মাষ্টার এবং জনসন

নামের দুই ব্যাক্তি। চেপে ধরা পদ্ধতি আসলে নাম

থেকেই অনুমান করা যায় কিভাবে করতে হয়। যখন

কোন পুরুষ মনে করেন তার বীর্য প্রায়

স্থলনের পথে, তখন সে অথবা তার সঙ্গী

লিঙ্গের ঠিক গোড়ার দিকে অন্ডকোষের কাছাকাছি

লিঙ্গের নিচের দিকে যে রাস্তা দিয়ে মুত্র/বীর্য

বহিঃর্গামী হয় সে শিরা/মুত্রনালী কয়েক

সেকেন্ডর জন্য চেপে ধরবেন। (লিঙ্গের পাশ

থেকে দুই আঙ্গুল দিয়ে ক্লিপের মত আটকে

ধরতে হবে।)। চাপ ছেড়ে দেবার পর ৩০ থেকে

৪৫ সেকেন্ডের মত সময় বিরতী নিন। এই সময়

লিঙ্গ সঞ্চালন বা কোন প্রকার যৌন কর্যক্রম করা

থেকে বিরত থাকুন।

এ পদ্ধতির ফলে হয়তো পুরুষ কিছুক্ষনের জন্য

লিঙ্গের দৃঢ়তা হারাবেন। কিন্তু ৪৫ সেকেন্ড পুর

পুনরায় কার্যক্রম চালু করলে লিঙ্গ আবার আগের দৃঢ়তা

ফিরে পাবে।

স্কুইজ পদ্ধতি এক মিলনে আপনি যতবার খুশি ততবার

করতে পারেন। মনে রাখবেন সব পদ্ধতির

কার্যকারীতা অভ্যাস বা প্রাকটিস এর উপর নির্ভর করে।

তাই প্রথমবারেই ফল পাওয়ার চিন্তা করা বোকামী

হবে।

এ পদ্ধতি সম্পর্কে বলার আগে আমি আপনাদের কিছু

বেসিক ধারনা দেই। আমরা প্রস্রাব করার সময় প্রসাব

পুরোপুরি নিঃস্বরনের জন্য অন্ডকোষের নিচ

থেকে পায়ুপথ পর্যন্ত অঞ্চলে যে এক প্রকার

খিচুনী দিয়ে পুনরায় তলপেট দিয়ে চাপ দেই

এখানে বর্নিত সংকোচন বা টেনসিং পদ্ধতিটি অনেকটা

সে রকম। তবে পার্থক্য হল এখনে আমরা খিচুনী

প্রয়োগ করবো –চাপ নয়।

এবার মুল বর্ননা – মিলনকালে যখন অনুমান করবেন

বীর্য প্রায় স্থলনের পথে, তখন আপনার সকল যৌন

কর্যক্রম বন্ধ রেখে অন্ডকোষের তলা থেকে

পায়ুপথ পর্যন্ত অঞ্চল কয়েক সেকেন্ডের জন্য

প্রচন্ড শক্তিতে খিচে ধরুন। এবার ছেড়ে দিন।

পুনরায় কয়েক সেকেন্ডের জন্য খিচুনী দিন।

এভাবে ২/১ বার করার পর যখন দেখবেন বীর্য

স্থলনেরে চাপ/অনুভব চলে গেছে তখন পুনরায়

আপনার যৌন কর্ম শুরু করুন।

সংকোচন পদ্ধতি আপনার যৌন মিলনকে দীর্ঘায়িত

করবে। আবারো বলি, সব পদ্ধতির কার্যকারীতা

অভ্যাস বা প্রাকটিস এর উপর নির্ভর করে। তাই

প্রথমবারেই ফল পাওয়ার চিন্তা করা বোকামী হবে।

যৌন জীবন

স্তন নিয়ে আপনার অজানা কিছু তথ্য এবং সমাধান

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মেয়েদের স্তন ঝুলে যাওয়া একটি সাধারন শারীরবৃত্তিয় প্রক্রিয়া। মধ্যাকর্ষন এবং স্তন চামড়ার স্থিতিস্থাপকাতা হ্রাস পাওয়ার ফলে পেশীকলা, অস্থিবন্ধনী এবং যে চামড়া আপনার স্তনকে ধরে রাখে তা ক্রমশঃ দুর্বল হয়ে যাওয়ার ফল স্বরূপ স্তন ঢিলে হয়ে যায় এবং তার যৌবন রূপ

পরামর্শ